স্কিন কেয়ার

চালের আটার ফেসপ্যাক এবং এর উপকারিতা

সাধারণত, আমাদের রান্নাঘরে এমন অনেক উপাদান রয়েছে, যা ত্বকের জন্য উপকারী। এমনই একটি উপাদান হল চালের আটা। চালের আটা ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। এতে প্যারা অ্যামিনো বেনজোয়িক অ্যাসিড নামে একটি বায়োঅ্যাকটিভ যৌগ রয়েছে, যা ত্বককে এক্সফোলিয়েট করতে এবং সূর্যের ইউভি রশ্মি থেকে রক্ষা করতে কাজ করে। চালের আটার ফেসপ্যাক ব্যবহারে ত্বক উজ্জ্বল হবে।

আজ এই পোস্টে আপনি ত্বকের জন্য চালের আটার ফেসপ্যাক বানানোর নিয়ম এবং ব্যবহারের উপকারিতা সম্পর্কে জানবেন।

চালের আটার ফেসপ্যাকের উপকারিতা

চালের আটা ধানের শীষ পিষে তৈরি করা হয়। চালের আটার রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য। ধানের শীষের বাইরের স্তরকে বলা হয় তুষ। তুষ তার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যের জন্য পরিচিত। তুষে ফেরুলিক অ্যাসিড এবং ফাইটিক অ্যাসিডের মতো বায়োঅ্যাকটিভ যৌগও রয়েছে, যা কিছু সৌন্দর্য পণ্যে ব্যবহৃত হয়। চলুন জেনে নেই চালের আটার ফেসপ্যাকের উপকারিতা সম্পর্কে-

স্কিন এক্সফোলিয়েন্টঃ চালের আটা স্কিন এক্সফোলিয়েন্ট এবং সান ব্লক হিসেবে ব্যবহার করা হয়। চালের আটায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে, যা ত্বককে UV ক্ষতি থেকে রক্ষা করার পাশাপাশি বার্ধক্য থেকে রক্ষা করে। এটি ত্বককে হালকা ও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। বাদামী চালের আটা দিয়ে ত্বক স্ক্রাব করা হয়।

সূর্য থেকে সুরক্ষাঃ চালের আটার মধ্যে রয়েছে ফেরুলিক অ্যাসিড এবং প্যারা অ্যামিনো বেনজোয়িক অ্যাসিডের মতো উপাদান, যা ত্বককে সূর্যের রশ্মি থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। রাইস ফেসপ্যাক মুখের সুস্থ কোষের পুনঃবৃদ্ধিতে উপকারী। বর্তমানে এ বিষয়ে গবেষণা চলছে।

ব্রণ এবং পিগমেন্টেশন থেকে মুক্তিঃ চালের আটার তৈরি ফেসপ্যাক ব্যবহার করলে ব্রণের সমস্যা সেরে যায় এবং ত্বক বেশ ফর্সা হয়। চালে রয়েছে ফাইটিক অ্যাসিড নামক উপাদান, যা ত্বকের এক্সফোলিয়েটর হিসেবে কাজ করে এবং ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে উপকারী।

এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা অনেক ত্বকের যত্নের পণ্যগুলিতে ব্যবহৃত হয়। চালের আটার ফেসপ্যাক পিগমেন্টেশন কমাতেও উপকারী। এতে রয়েছে গ্লাইকোলিক এবং স্যালিসিলিক অ্যাসিড, যা কালো দাগ এবং মেলাজমা কমাতে উপকারী।

আরো পড়ুনঃ মধুর ফেসপ্যাক দিয়ে ব্রণ দূর করার উপায়, সহজে ব্রণের দাগ দূর করার উপায়

ক্ষত নিরাময়ঃ চালের আটার ফেসপ্যাকে অ্যালানটোইন নামক একটি জৈব যৌগ রয়েছে, যার প্রশান্তিদায়ক এবং প্রদাহ বিরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি প্রদাহ কমাতে এবং ক্ষত নিরাময়ে ব্যবহৃত হয়।

অতিরিক্ত তেল পরিষ্কার করেঃ আপনার যদি তৈলাক্ত ত্বক হয় তবে চালের আটার তৈরি একটি ফেসপ্যাক সাহায্য করতে পারে। এটি ত্বক থেকে অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে উপকারী। ভাতের মাড় ত্বক থেকে তেল দূর করতে সাহায্য করে এবং তৈলাক্ত ত্বকের যত্নের পণ্যেও ব্যবহৃত হয়।

আরো পড়ুনঃ বেসনের ফেসপ্যাকঃ ১৫ টি সহজ টিপস, মুলতানি মাটি দিয়ে ব্রণ দূর করার উপায়

চালের আটার ফেসপ্যাক বানানোর নিয়ম

আসুন, এবার জেনে নিন কীভাবে চালের আটা দিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করবেন-

  • ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ চালের গুঁড়া নিন।
  • এতে 1-2 টেবিল চামচ দুধের গুঁড়া যোগ করুন।
  • এছাড়াও 1 টেবিল চামচ অলিভ অয়েল যোগ করুন ।
  • তারপর কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল যোগ করুন এবং উপাদানগুলি ভালভাবে মেশান।
  • 15 মিনিটের জন্য এটি সারা মুখে লাগিয়ে শুকাতে দিন।
  • তারপর হাত দিয়ে মুখে কয়েক ফোঁটা পানি ছিটিয়ে হাত দিয়ে হাল্কা ঘসে ফেসপ্যাক তুলে ফেলুন।
  • এরপর সাধারণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

সারসংক্ষেপ

চালের আটার ফেসপ্যাক ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এর মাস্ক তৈরি করতে এতে গোলাপ জল, অলিভ অয়েল এবং মিল্ক পাউডারের মতো উপাদান ব্যবহার করা হয়। চালে উপস্থিত জৈব সক্রিয় যৌগ যেমন ফেরুলিক অ্যাসিড এবং ফাইটিক অ্যাসিড ত্বকের জন্য উপকারী। তাই, এটি কালো দাগ কমাতেও সহায়ক। যেকোনো ধরনের ফেসপ্যাক ব্যবহারের আগে একবার প্যাচ টেস্ট করে নিন এবং বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (16 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button