হেয়ার স্টাইল

সরিষার তেলের উপকারিতা চুলের জন্য

চুলে সরিষার তেল লাগাতে চাইলে প্রথমে সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞের কাছ থেকে জেনে নিন প্রয়োগের নিয়ম।

আমাদের দাদিদের আমলে বাজারে এত বিউটি প্রোডাক্ট ছিল না। তখনকার দিনে নারীরা তাদের সৌন্দর্যকে প্রাকৃতিক জিনিস দিয়ে সাজাতেন। চুলের জন্য ঘরে তৈরি জিনিস ই ব্যবহার করা হতো। সাধারণত মহিলারা চুলে সরিষার তেল লাগাতেন। বর্তমান সময়ে, সরিষার তেল সাধারণত রান্নার জন্য ব্যবহৃত হয়। কিন্তু বর্তমান সময়েও এই তেল চুলের জন্য আগের মতোই উপকারী।

আপনিও যদি চুলে সরিষার তেল লাগিয়ে উপকার পেতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই এটি ব্যবহারের সঠিক পদ্ধতি জানতে হবে। এ বিষয়ে আপনাদের সঠিক গাইডলাইন দিতে আমি কথা বলেছি একজন সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞের সাথে। তিনি বলেন, “সরিষার তেলের সবচেয়ে ভালো গুণ হল এটি চুলে মেলানিন উৎপাদন বাড়ায়। এ ছাড়া সরিষার তেলে সব ধরনের পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা চুলের প্রয়োজন।

তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে চুলে সরিষার তেল লাগাবেন-

চুলের কন্ডিশনার সরিষার তেল

সরিষার তেলের পুষ্টিগুণ

  • সরিষার তেলে সেলেনিয়াম থাকে।
  • সরিষার তেলেও রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড।
  • সরিষার তেলেও প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-বি৩ পাওয়া যায়।
  • সরিষার তেলে প্রোটিন থাকে।
  • ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং জিঙ্কের মতো খনিজ পদার্থও সরিষার তেলে পাওয়া যায়।

চুলের জন্য সরিষার তেলের উপকারিতা

চুলে সরিষার তেল লাগালে চুল পড়ার সমস্যা কমে। এর সবচেয়ে বড় কারণ হল সরিষার তেল মাথার ত্বকে রক্ত ​​চলাচলের উন্নতি ঘটায়। চুল খুব শুষ্ক হলে অবশ্যই সরিষার তেল লাগান। সরিষার তেলের কন্ডিশনার বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি চুলকে নরম ও চকচকে করে। চুল আগে থেকেই তৈলাক্ত হলে সরিষার তেলে লেবুর রস মিশিয়ে লাগান।

আপনার যদি দুমুখো চুলের সমস্যা থাকে, তাহলে চুলে সরিষার তেল লাগালে তাতেও আরাম মিলবে।

চুলে সরিষার তেল কিভাবে ব্যবহার করবেন

সরিষার তেল সবসময় হালকা গরম করে চুলে লাগাতে হবে। সরিষার তেল ঘন এবং হালকা গরম করলে এর ঘনত্ব কমে, সেই সঙ্গে হালকা গরম সরিষার তেল দিয়ে মাথায় মালিশ করলে রক্ত ​​চলাচলের উন্নতি হয়।

আপনার চুল তৈলাক্ত হলে সরাসরি চুলে সরিষার তেল লাগাবেন না। পরিবর্তে, আপনি একটি স্প্রে বোতলে অর্ধেক জল এবং অর্ধেক সরিষার তেল মেশান। তারপর এই মিশ্রণটি ভেজা চুলে লাগান।

সরিষার তেল লাগানোর পর গরম তোয়ালে হেয়ার ট্রিটমেন্টও নিতে পারেন। এটি তেল সঠিকভাবে শিকড় পর্যন্ত পৌঁছানোর অনুমতি দেবে। আপনাকে যা করতে হবে তা হল একটি তোয়ালে দিয়ে ১৫ মিনিট চুল মুড়িয়ে রাখুন।

১ ঘণ্টার বেশি চুলে সরিষার তেল রাখবেন না। আপনার যদি উচ্চ রক্তচাপ বা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থাকে, তাহলে সরিষার তেলের তীব্র গন্ধ আপনাকে বিরক্ত করতে পারে। তাই এটি খুব অল্প পরিমাণে এবং শুধুমাত্র চুলে 30 থেকে 60 মিনিটের জন্য লাগান।

চুলে সরিষার তেল লাগানোর পর অন্তত ২ বার শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুতে হবে। এই তেল ঘন, তাই একবার মাথা ধোয়ালে এর চর্বি দূর হয় না।

সতর্কতাঃ মাথার ত্বকে ব্রণের সমস্যা থাকলে সরিষার তেল লাগাতে ভুলবেন না। এই তেল গরম এবং ব্রণের সমস্যা বাড়িয়ে দিতে পারে। আপনি যদি চুলে কোনও রাসায়নিক চিকিৎসা নিয়ে থাকেন তবে আপনি যখন আবার স্পর্শ করতে যাচ্ছেন তখনই সরিষার তেল লাগাতে হবে।

বিঃদ্রঃ- চুলে সরিষার তেল লাগানোর পর যদি আপনার মাথার ত্বকে জ্বালাপোড়া বা চুলকানির সমস্যা হয়, তাহলে বুঝবেন আপনার ত্বক সংবেদনশীল। চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া আপনার এই তেল পুনরায় ব্যবহার করা উচিত নয়।

আপনি যদি সরিষার তেল সম্পর্কিত এই তথ্যটি পছন্দ করেন তবে অবশ্যই এটি শেয়ার করুন এবং লাইক করুন।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (7 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button