লাইফস্টাইল

দাঁতের যত্ন

ছোটবেলা থেকে কারণে অকারনে অনেক কারনেই আমরা একটা কথা শুনে বড় হয়েছি –

“দাঁত থাকতে দাঁতের যত্ন নিন”

গুরুজনের বাণী

কথাটা যারা গুরুত্বের সহিত নিয়েছে তারা এখন বেশ আছে। কিন্তু যারা গুরুত্বের সহিত নেইনি তারা এখন ঠিকই বুঝি যে কি ভুলটাই না করেছি।

হলদে ভাবের জন্য ঠিকমত হাঁসতে পারিনা, দাঁতের ব্যাথায় রাতে ঘুমাতে পারিনা, ঠিকমত খাবার খেতে পারিনা, ব্রাশ করতে গেলে বা খেতে গেলে রক্ত পরে আরো নানাবিধ ঝামেলা। এসব ঝামেলা পোহাতে পোহাতে একসময় দেখা যায় দাঁত গুলোই আর নেই। আহারে সাধের দাঁত মোর অকালেই ঝড়ে গেলো।

সেই দাঁত রক্ষা করতে আমরা কত কিছুই না করি কিন্তু সেই সবই সময় পার হয়ে গেলে। যখন দক্ষ যজ্ঞ করেও আর কোন লাভ নেই। আমরা কি জানি দাঁত আমাদের শরীরে কত মূল্যবান একটা বস্তু? হতে পারে অনেকে জানি আবার অনেকে জানি না আমাদের শরীরে দাঁতের ভূমিকা কতটুকু।

দাঁতের যত্ন – দাঁত আমাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। তাছাড়া আমাদের বেঁচে থাকার জন্য খাবারের প্রয়োজন। আর সেই খাবার খাওয়ার জন্য আমাদের সুস্থ দাঁতের প্রয়োজন।

দাঁতের যত্ন করার জন্য করণীয় গুলোঃ

নিচের কাজগুলো নিয়মিত করুন। সুস্থ ও সুন্দর দাঁতের অধিকারী হোন। হতে পারে ক্লোজ আপ এর পরিবর্তী বিজ্ঞাপনে আপনার ডাক পরতে পারে।

  1. দিনে দুইবার (সকালে নাস্তার পরে ও রাতে ঘুমানোর আগে) নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করুন।
  2. দাঁতে জমে থাকা খাদ্যকণা অথবা প্লাক দূর করতে দিনে একবার ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করুন।
  3. তামাক সমৃদ্ধ দ্রব্য যেমন-সিগারেট,গুল,জদ্দা ইত্যাদি ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন,এগুলো মুখের ক্যান্সার এবং দূর্গন্ধের অন্যতম কারণ।
  4. মুখের আদ্রতার জন্য বেশি বেশি জল পান করুন।

দাঁতের যত্নে উপকারী খাদ্যঃ

সুস্থ ও সুন্দর দাঁত পেতে নিয়মিত এই খাদ্যগুলো খাবার অভ্যাস করুন –

  1. ভিটামিন সি (আমলকী, লেবু, কমলা, টমেটো, পেয়ারা ইত্যাদি)।
  2. যে সকল খাদ্য চিবিয়ে খেতে হয় যেমন (ফল,শাকসব্জি ও আশঁযুক্ত খাদ্য)।
  3. ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার যেমন- দুধ,পনির,দধি ইত্যাদি।
  4. ভিটামিন ডি (দুধ,সামুদ্রিক মাছ,ডিমের কুসুম ইত্যাদি)।

দাঁতের যত্নে রসুন খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নিচের পোস্টে দেখুন

দাঁতের অপকারী খাদ্যঃ

যে সকল খাদ্য সুস্থ ও সুন্দর দাঁত এর জন্য বর্জনীয় –

  1. মিষ্টি এবং অন্যান্য আঠালো শর্করা জাতীয় খাদ্য।
  2. প্রচুর পরিমাণে চিনি সমৃদ্ধ চা,কফি ও কোমল পানীয়।
  3. বিস্কুট,পটেটো চিপস,চকলেট এবং চিনি সমৃদ্ধ খাবার।

উপরের কাজ গুলো নিয়মিত অনুসরণ করার মাধ্যমে আমরা সকলেই হয়ে উঠতে পারি সুস্থ ও সুন্দর দাঁতের অধিকারী। সবশেষে একটা কথাই বলতে চাই – “দাঁত থাকতে দাঁতের যত্ন নিন”।

আমাদের ওয়েবসাইটে চা এর উপকারিতা নিয়ে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট আছে। চাইলে পড়ে নিতে পারেন।

5/5 - (7 votes)

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button