লাইফস্টাইল

ভালো শাড়ি চেনার উপায়

পোশাকের কথা বললে বাঙ্গালী মেয়েদের প্রথম পছন্দ হল শাড়ি। টপস জিনস পড়া আধুনিক মেয়েটাও তাই বিয়ের দিন শাড়িকেই বেছে নেয়। কিংবা বছরের বিশেষ দিনগুলোতেও নানা ধরনের শাড়িতে মেয়েরা সাজতে পছন্দ করে। তবে প্রশ্ন থেকে যায় যে আপনার সে বিশেষ দিনের জন্য একটি ভালো শাড়ি কিভাবে কিনবেন? ভালো শাড়ি কেনার নির্ধারিত তেমন কোন নিয়ম নেই তবে আপনি যদি শাড়ি পরায় অভ্যস্ত হোন বা নিয়মিত শাড়ি কিনে থাকেন তাহলে এর নানা ধরন সম্পর্কে আপনার ধারনা হয়ত আছে। একটি ভালো শাড়ি কেনার আগে এর ধরন নির্ধারন করা জরুরি। এরপর ধরন অনুযায়ী কাপড় চিনে নিতে হবে। চলুন পুরো বিষয়টি ধাপে ধাপে আলোচনা করি।

১ম ধাপঃ ধরন নির্বাচন

আরামদায়ক ও টেকসই এর দিক থেকে সুতি শাড়ি সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয়। এছাড়াও আমাদের দেশে গর্ব করার মত বেশ কিছু কাপড় রয়েছে যেমন জামদানী, কাতান, বেনারসি, সিল্ক, খাদি, মসলিন ইত্যাদি। আপনার পছন্দ অনুযায়ী প্রথমেই ধরন নির্বাচন করে নিন। উপলক্ষকে সামনে রেখে নির্বাচনের কাজটি করতে পারেন। যেমন পহেলা বৈশাখ, ঈদ, ভালোবাসা দিবস ইত্যাদি উৎসবে সুতি, মসলিন, হালকা কাতান ভালো চলে। বিয়ে বা আকদ-এ বেনারসি, জামদানী ইত্যাদির চাহিদা বেশী।

অপরদিকে বিভিন্ন পার্টি বা পারিবারিক অনুষ্ঠানে পড়তে পারেন সিল্ক, খাদি, তসর, কাতান ইত্যাদি। অফিস বা ঘরে নিয়মিত পরার জন্য সুতিই সবচেয়ে ভালো এবং আরামদায়কও বটে। তাই সুতির চাহিদাও অনেক বেশী। আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী আগে কোন ধরনের শাড়ি কিনতে চান তা ঠিক করে নিন। তা না হলে বাজারে শত শত শাড়ির ভীড়ে দিশেহারা হতে সময় লাগবে না।

২য় ধাপঃ স্থান নির্বাচন করুন

আপনি কোথা থেকে আপনার পছন্দের শাড়িটি কিনবেন সে স্থান নির্বাচন করাটাও জরুরী। কারন ভালো মানের শাড়ি পেতে চাইলে ভালো যায়গা থেকে কেনা জরুরি। যেমন আপনি যদি বিয়ে বা কোন অনুষ্ঠানের জন্য বেনারসি বা কাতান শাড়ি কিনতে চান তাহলে মিরপুর বেনারসি পল্লী হল সবচেয়ে সঠিক স্থান।

আসল জামদানী সহজেই পেতে পারেন সোনারগাঁও এর লোকজ জাদুঘরে। সেখানে এত বেশী কালেকশন থাকে যে খুব সহজেই আপনি আপনার কাংক্ষিত শাড়ি খুঁজে পাবেন। এছাড়াও ধানমন্ডী হকার্স মার্কেটে অর্ডার দিলে তারা জামদানী পল্লী থেকে আপনার পছন্দের শাড়ি তৈরি করে এনে দিবে।

মিরপুর ১, ঢাকা নিউ মার্কেট, মৌচাক, বসুন্ধরা সিটি সহ যে কোন বড় দোকানেই পাবেন টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি।

৩। ৩য় ধাপঃ কাপড় চিনুন

ভালো শাড়ি কেনার জন্য প্রয়োজন কাপড় চেনা। কারন কাপড় না চিনলে বাজারে সঠিক শাড়ি খুঁজে পেতে বেহাল হতে হবে। চলুন দেখি কাপড় চিনবেন কিভাবে-

• সিল্কঃ আসল সিল্ক চেনার জন্য একটি সুতা টেনে পুড়িয়ে নিন। যদি আসল সিল্ক হয় তাহলে পোড়ার সময় রেশম পোকার পোড়া পোড়া গন্ধের সাথে সুতা পুড়ে পুরো ছাই হয়ে যাবে। অপরদিকে যদি কাপড় পলিয়েস্টার হয় তাহলে সুতা গলে আঠার মত হবে এবং কোন গন্ধও থাকবে না।

• কাতান, গরদ এবং তসরঃ সিল্কের মতই কাতান, গরদ এবং তসর কাপড় থেকে একটি সুতা বের করে পুড়িয়ে নিন। পুড়ে ছাই হয়ে গেলে সেটা আসল কাতান, গরদ কিংবা তসর কাপড়।

• সুতিঃ খাঁটি সুতি কাপড় তুলনামূলক কম উজ্জ্বল হয়। এবং এই কাপড় মোচড়ালে খুব তাড়াতাড়ি কুঁচকে যায় আবার ধুয়ে টান টান করে শুকালে সহজে সোজাও হয়ে যায়। এটাই হল সুতি কাপড় চেনার সবচেয়ে সহজ উপায়।

ভালো শাড়ি কিভাবে কিনবেন তা আজকের আলোচনা থেকে নিশ্চয় পরিষ্কার বুঝে গেছেন। তবে আপনি যদি শাড়ি কেনায় নতুন হোন তবে সবচেয়ে ভালো হল কেনাকাটার সময় অভিজ্ঞ কাউকে সাথে রাখা। এতে শত শত শাড়ির ভীড়ে একটি ভালো শাড়ি সহজে খুঁজে নিতে পারবেন। এছাড়াও অনলাইনেও শাড়ি কিনতে পারবেন। আর্টিকেলটি প্রকাশিত হয়েছে স্যানিটা বাংলাদেশের সৌজন্যে।

অনলাইনে ভালো মানের শাড়ি কিনতে এই ওয়েবসাইটে যেতে পারেন j2gmart.com

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (5 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button