বিউটি টিপস

কলার ফুলের উপকারিতাঃ ত্বক ও চুলের এই ৩টি সমস্যায় অবশ্যই ব্যবহার করুন

কলার ফুল আপনার চুল ও ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। কলার ফুলে এমন বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা চুল ঘন করে এবং ত্বককে সুস্থ রাখে।

ত্বক ও চুল মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিন্তু ক্রমবর্ধমান দূষণের কারণে এই দুটি জিনিসই খারাপ হয়ে যাচ্ছে বলে মনে হচ্ছে। এর সমাধানে বিভিন্ন পদ্ধতিও অবলম্বন করা হয়। তবে এ ধরনের সমস্যার জন্য প্রাকৃতিক উপায়ই উত্তম।

ত্বক ও চুলের যত্নে বাজারে অনেক পণ্য পাওয়া গেলেও এগুলো ব্যবহারে ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেশি। আপনার চুল এবং ত্বকের যত্ন নিতে, আপনি ঘরোয়া প্রতিকার অবলম্বন করে তাদের সুন্দর করতে পারেন। তো চলুন জেনে নিই কিভাবে কলা ফুল দিয়ে আপনার সৌন্দর্য বাড়াতে পারেন, কিভাবে এটি ত্বক ও চুলের জন্য উপকারী প্রমাণিত হবে।

কলার ফুলের উপকারিতা

কলার ফুল খাওয়া যায় এবং তা খেলে শরীর বেশি পুষ্টি পায়, যা শরীরে শক্তি যোগায়। কিন্তু এটি চুল এবং ত্বকের জন্যও ব্যবহৃত হয়, যা আপনাকে একটি উজ্জ্বল এবং সুন্দর ত্বক এবং চুল দিতে কাজ করে। এর ফুল যদি কলার সাথে মিশিয়ে দেওয়া হয় তবে এর প্রভাব দ্বিগুণ হয়।

আরও পড়ুন: খুশকি দূর করার ৫টি ঘরোয়া উপায়, চুলের যত্ন নেয়ার সঠিক উপায়

কলার ফুলে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট পাওয়া যায়, যা ত্বকের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। বাজারে পাওয়া যায় এমন অনেক দামি পণ্য যেমন হেয়ার সিরাম, ক্রিম, স্ক্রাব, ফেস ওয়াশ ইত্যাদিতে কলার ফুল ব্যবহার করা হয়। তবে এর পাশাপাশি জেনে নিন আরও কিছু উপকারিতা সম্পর্কে।

চুল থেকে খুশকি দূর করতে উপকারী

চুলে খুশকির সমস্যার কারণে চুল পড়া শুরু হয়, প্রাণহীন হয়ে পড়ে। এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে, আপনি বাজারের বিভিন্ন পণ্য ব্যবহার করেন, তবে আপনি সবসময় এটি থেকে পরিত্রাণ পান না। তাই এর জন্য আপনি কলার ফুল বা কলার প্যাক ব্যবহার করতে পারেন, যা খুশকির সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি দিতে পারে।

এটি কিভাবে ব্যবহার করবেন?

  • প্রথমে কলার ফুল পানিতে ফুটিয়ে নিন।
  • কলা পিষে সেদ্ধ কলার ফুল মিশিয়ে তাতে মধু, দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
  • এবার এই পেস্টটি গোসলের ২০ মিনিট আগে চুলের গোড়ায় লাগান এবং তারপর চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।
  • সপ্তাহে অন্তত দুবার এভাবে চুলে কলার পেস্ট লাগান।

আরো পড়ুনঃ চিরতরে চুল পড়া বন্ধ করার উপায়, চুল পড়া বন্ধ ও ঘন করার উপায়

অ্যান্টি-এজিং ফেসপ্যাক হিসাবে

কলায় রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান যা মুখের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে।

এটি কিভাবে ব্যবহার করবেন?

কলার ফুল পিষে আপনার প্রতিদিনের ব্যবহার্য ফেস ক্রিম, ময়েশ্চারাইজার ক্রিমে মিশিয়ে ব্যবহার করুন। এতে আপনার মুখের বলিরেখা দ্রুত কমে যাবে।

চুল বৃদ্ধিতে সাহায্য করে

মানুষ লম্বা চুল পছন্দ করে, যার জন্য চুলে তেলের বিভিন্ন পদ্ধতি এবং অনেক প্রতিকার গ্রহণ করা হয়। কিন্তু তবুও তারা দীর্ঘ এবং ঘন চুল পেতে সক্ষম হয় না। তাই এই সমস্যার জন্য আপনি কলা এবং এর ফুল ব্যবহার করতে পারেন যা আপনার চুল বাড়াতে সহায়ক হবে।

এটি কিভাবে ব্যবহার করবেন?

  • কলার ফুল পিষে তাতে কলা মাখিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
  • এবার এই পেস্টটি সপ্তাহে তিনবার চুলে ভালো করে লাগান। এতে চুল মজবুত, লম্বা ও ঝলমলে হবে। এছাড়াও, এই প্রতিকার মানসিক চাপ উপশম করতেও সহায়ক হবে।

আরও পড়ুন: চকচকে চুল পেতে মধু দিয়ে চুলের যত্ন নিন এইভাবে, স্থায়ীভাবে চুল সোজা করার উপায়, চুলের যত্নে তিসির ব্যবহার কিভাবে করবেন?

কলার ফুল ও কলা শরীরের ভেতরের অংশের পাশাপাশি বাইরের অংশের জন্যও উপকারী। স্ক্রাব হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। এতে মুখে উজ্জ্বলতা আসবে এবং কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও হবে না।

আরো জানুনঃ

5/5 - (15 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button